আইএসের ‘রক্তাক্ত খিলাফত’ ধংসের মুখে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
Published:  2017-06-30 11:09:03

আইএসের ‘রক্তাক্ত খিলাফত’ ধংসের মুখে

ইউফ্রেটিস নদীর তীরেই রক্তাক্ত সংঘর্ষের পরই শেষ হবে আইএসের তৈরি রক্তাক্ত খিলাফত বা ধর্মীয় রাজ্য৷ এমনই ধারণা রুশ-মার্কিন গোয়েন্দা এজেন্সির৷ সম্পূর্ণ দখলের মুখে এসে গিয়েছে মোসুল৷ দ্রুত ঘোষণা করা হবে চূড়ান্ত জয়৷ জানিয়ে দিল আইএস বিরোধী অভিযানে নিযুক্ত ইরাকি-কুর্দিস সেনাবাহিনী৷ সংবাদ সংস্থা এএফপি জানাচ্ছে এই খবর৷

মোসুল শহরকে সম্পূর্ণ জঙ্গি মুক্ত করতে আর অল্প সময় বাকি৷ তবে সংগঠনের প্রধান আবু বকর আল বাগদাদি কি মৃত তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েই গিয়েছে৷ যদিও বাগদাদির মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি রাশিয়ার৷ মোসুলের পূর্বদিকটি সম্পূর্ণ আইএস মুক্ত৷ সেখান থেকেই অভিযান চালিয়ে ফের দখল করা হয়েছে বহু প্রাচীন গ্র্যান্ড আল-নুরি মসজিদ৷

৮০০ বছরের পুরনো এই মসজিদ থেকেই খিলাপথ (ধর্মীয় রাজ্য) গঠনের ডাক দিয়েছিল আইএস প্রধান আবু বকর আল বাগদাদি৷তার বেঁচে থাকা নিয়েও তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা৷ সর্বশেষ বাগদাদিকে মেরে ফেলার দাবি করেছে রুশ সরকার৷ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা জানাচ্ছে, মোসুলের পশ্চিম প্রান্তে লুকিয়ে থাকা আইএস জঙ্গিরা ক্রমশ পিছু হটতে শুরু করেছে৷ আশঙ্কা তারা এলাকা ছাড়ার আগে বহু মানুষকে খুন করবে৷

অন্যদিকে আইএস রাজধানী হিসেবে কুখ্যাত হয়ে যাওয়া সিরিয়ার রাক্কা শহরকে ঘিরে ফেলা হয়েছে৷ বিভিন্ন আইএস বিরোধী সংগঠনের দাবি, রাক্কা শহরকে দখল মুক্ত করতে বড়সড় আক্রমণের পথে যাচ্ছে সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্সেস৷ এই সংগঠন আইএসবিরোধী লড়াইয়ে কুর্দিস, আরব, টার্কমেন সহ কয়েকটি জনগোষ্ঠীর সম্মিলিত জোট৷ রাক্কা শহরকে সম্পূর্ণ ঘিরে ফেলা হয়েছে৷ জানিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্ক সমর্থিত এসডিএফ৷ বেঁচে থাকলে আর পালাবার পথ নেই বাগদাদির৷

 

লাইভ ক্রিকেট স্কোর