আবগারি শুল্কে ইতিবাচক পরিবর্তন আনার চিন্তা: অর্থ প্রতিমন্ত্রী

সারাবাংলা ডেস্ক :
Published:  2017-06-21 13:16:48

আবগারি শুল্কে ইতিবাচক পরিবর্তন আনার চিন্তা: অর্থ প্রতিমন্ত্রী

ব্যাংক আমানতের ওপর প্রস্তাবিত আবগারি শুল্ক হার এবং বিদ্যমান আরোপিত শুল্কের ক্ষেত্রে ইতিবাচক পরিবর্তন আনার বিষয়ে সরকার চিন্তাভাবনা করছে বলে জানিয়েছেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান।

তিনি বলেন,‘অধিকাংশ ক্ষুদ্র আমানতকারীকে করের আওতার বাইরে রাখতে আমরা প্রস্তাবিত বাজেটে শুল্কমুক্ত আমানতের সীমা বাড়িয়ে ২০ হাজার টাকা থেকে এক লাখ টাকায় উন্নীত করার প্রস্তাব করেছিলাম।তবে আবগারি শুল্ক নিয়ে অনেকে আপত্তি জানাচ্ছেন।এজন্য আমরা ব্যাংক আমানতের ওপর প্রস্তাবিত শুল্কহারের পরিবর্তনসহ এক্ষেত্রে আরোপিত শুল্কের বিষয়ে অত্যন্ত ইতিবাচক চিন্তাভাবনা করছি।’

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে দৈনিক ভোরের কাগজ আয়োজিত ‘বাজেট ২০১৭:একটি পর্যালোচনা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থ প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্তের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য ও সিনিয়ির সচিব ড. শামসুল আলম, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মীজানুর রহমান,বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক প্রধান অর্থনীতিবিদ ড. বিরুপাক্ষ পাল,অর্থনীতি বিশ্লেষক ড. এম আর দেবনাথ প্রমুখ আলোচনায় অংশ নেন।

এম এ মান্নান বলেন,উন্নয়নের বিকল্প নেই।এজন্য আমরা উচ্চাভিলাসী বাজেট প্রণয়নের ঝুঁকি নিয়েছি। প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রাও বড় আকারে নির্ধারণ করেছি। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমাদের সরকার অর্থনীতির আগুনে ফু দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে।যাতে অর্থনীতির চাকা গতিশীল হয়।ইতোমধ্যে তার ফলও পাওয়া গেছে। প্রবৃদ্ধি সাতের ওপরে চলে গেছে। আগামীতে প্রবৃদ্ধি ৮ শতাংশে পৌঁছে যাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন,বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সম্পদ শ্রমশক্তি।একে কাজে লাগাতে সরকার নানামূখী উদ্যোগ নিয়েছে। পাশাপাশি দারিদ্য্র বিমোচনে কল্যাণমূখী কর্মসূচিগুলো জোরদার করা হয়েছে। 

লাইভ ক্রিকেট স্কোর