মধুমাসে জামাই সাজন বিলুপ্তির পথে

এম এ জলিল রানা, জয়পুরহাট প্রতিনিধি:
Published:  2017-05-12 09:40:31

মধুমাসে জামাই সাজন বিলুপ্তির পথে

মধুমাসে জামাই সাজন এখন বিলুপ্তীর পথে। চিরায়ীত বাংলার ঐতিহ্যপূর্ণ একটি উৎসব হল মধুমাসে মেয়ে বাড়ীতে জামাই সাজন পাঠানো। এ রেওয়াজ বা রিতি এখন প্রায় বিলুপ্তির পথে। দেশব্যাপী অঞ্চল বিশেষে এক সময় কম বেশী সব এলাকায় এ উৎসবের ঘনঘটা প্রচলন ছিল অত্যান্ত জনপ্রিয়।

কালের বিবর্তন আর আধুনিকতার মোড়কে ঢাকা পড়েছে ঐতিহ্যপূর্ণ অনেক গ্রাম্য কৃষ্টিকালচার। তাই অতীতের এই জনপ্রিয় মৌসুমি আম কাঁঠালসহ বাহারী ফলমুলের সম্ভারে সাজন সাজিয়ে মেয়ের জামাই বাড়ীতে এই সাজন পাঠানো আর তেমন চোঁখে পড়েনা। উত্তর জনপদের প্রত্যেক গ্রাম অঞ্চলের ঘরে ঘরে এক সময় মধুমাস উপলক্ষ্যে জামাই পড়বে ব্যাপক উৎসব প্রচলন ছিল। যা এখন প্রায় বিলুপ্ত।

বৈশাখ মানেই মধুমাস, আর মধুমাস মানেই বৈশাখ। আম,জাম,লিচু, কাঁঠাল,খেঁজুর, তরমুজসহ নানা পদের বাহারী রসালো ফলের সমাহার  তাই বৈশাখ মানেই মধুমাস। মধুমাসের অছিলায় ফল মৌসুমে প্রত্যেক পরিবারে বছরে অন্তত একবার হলেও দুরের কাছের সকল আত্মীয়-স্বজনদের সাথে পরস্পরের সাথে দেখা হতো কুশল বিনিময় হতো। ফলে বংশ পরম্পরায় আত্বীয়তার নিবিড় বন্ধন আরও সুদৃঢ় হতো। ভাবতে গেলেই যেন কেমন লাগে।

ধীরে ধীরে কোথায় যেন হারিয়ে যাচ্ছে আত্বীয়তার নিবিড় বন্ধনের মমতাময়ী সেই দিনগুলি। ইট পাথরের বাড়ি যেথা, ইট পাথরের ঘর, কেউ আসেনা কারো বাড়ী, সবাই যেন পর। সবকিছুতেই যোগ করেছি আধুনিকতার নামখানি, এই নামেতে সব হারাবে খুঁজলে পাবো কোনখানে।

লাইভ ক্রিকেট স্কোর