সিভির কিছু সাধারণ ভুল বর্জন করুন!

সারাবাংলা নিজস্ব প্রতিনিধি :
Published:  2017-03-30 08:18:00

সিভির কিছু সাধারণ ভুল বর্জন করুন!

আপনার স্বপ্নের পেশার জন্য আপনি যখন ইন্টারভিউ এর প্রস্তুতি নিচ্ছেন, তখন আপনার প্রথমেই দরকার একটি নিখুত সিভি, যাতে করে নিয়োগকারী কর্মকর্তার সুবিধা হয়, আপনার সম্পর্কে সঠিক ধারণা পেতে। সত্যিকার অর্থে আপনার নিয়োগকর্তার মন জয় করার প্রথম চাবিকাঠি হল আপনার নিখুত সিভি।

আপনি যদি এই মূহুর্তে একজন চাকরি প্রার্থী হয়ে থাকেন, এবং এপ্লাই করার আগে কিভাবে আপনার সিভি কে আরও আধুনিক ভাবে উপস্থাপন করবেন তা নিয়ে চিন্তিত থাকেন, এভারজবস্ বাংলাদেশ আপনার জন্য নিয়ে এসেছে কিছু সিভি লেখার টিপস, সময় নিয়ে এই লিখাটি পড়ুন যাতে আপনার সিভিতে নিম্নোক্ত ভুল গুলো না হয়।

১. অপ্রোজনীয় ব্যক্তিগত তথ্যঃ কোন আদর্শ সিভিতে ব্যক্তিগত তথ্যের সুদীর্ঘ বর্ণনা করা ঠিক নয়। শখ, আগ্রহের বিষয়, ধর্ম বা রাজনৈতিক মতামত সিভিতে উল্লেখ না করাটাই শ্রেয়। সাধারণত নিয়োগকারী কর্মকর্তাগন যেকোন সিভির পেছনে ৬-১০ সেকেন্ড সময় ব্যয় করেন, সুতরাং অপ্রাসঙ্গিক তথ্যের কারনে আপনার উপর থেকে নিয়োগকর্তার দৃষ্টি সরে যায়।

২. অস্পষ্ট তথ্যঃ আপনার সিভির মূল উদ্দেশ্য কি তা উল্লেখ করুন। এমনভাবে তথ্য উপস্থাপন করুন, যাতে করে স্পষ্ট ধারনা পাওয়া যায় আপনি কোন পজিশনের জন্য এপ্লাই করেছেন। আগেই উল্লেখ করা হয়েছে, অপ্রোজনীয় ও অস্পষ্ট তথ্য আপনার ইন্টারভিউ এর সম্মুক্ষিন হওয়ার সম্ভাবনা কে কমিয়ে দেয়। আপনার সিভিতে যে শব্দ বা বাক্য ব্যবহার করেছেন, নিশ্চিত করুন তা সরাসরি ও সুনিশ্চিত । আপনার সিভিতে এই ধরনের কিছু শব্দ ব্যবহার ক্রুন যেমন, various, some, many অথবা few, যখন আপনি আপনার কিছু অর্জন সম্পরকিত তথ্য প্রদান করবেন। সুতরাং যখন আপনি আপনার কোন অর্জন সম্পরকিত তথ্য অথবা প্রকল্প সম্পরকিত তথ্য লিখবেন খেয়াল রাখবেন তা তখন সরাসরি ও সুনিশ্চিত হয়।

৩. বিভ্রান্তিকর ব্যবধানঃ আপনার সিভিতে দক্ষতার ব্যাবধান যেমন আপনি কোন বৈধ কারনে আপনার পূর্ববর্তী কোম্পানী ত্যাগ করেছেন তার সঠিক তথ্য যদি উল্লেখ না করে থাকেন ,, তাহলে আমরা আপনার সিভিকে সন্দেহের চোখে দেখব এবং পুনরায় আপনার সিভি রিভিউ করব। বৈধ কারণ ব্যাখ্যা করুন, আপনি কেন আপনার আগের কোম্পানী ত্যাগ করেছেন। শিক্ষা সম্পরকিত ব্যবধান থাকলে এর কারণও উল্লেখ করুন যদি অসুস্থতা বা পারিবারিক কারনে তা হয়ে থাকে।

৪. মিথ্যা বলাঃ আপনার অর্জন বা দক্ষতা কখনোই বাড়িয়ে বলবেন না। নিয়োগকর্তা সহজেই শনাক্ত করতে পারেন, কেউ যদি সিভিতে মিথ্যের আশ্রয় নেয়, সুতরাং আপনার সিভিতে সত্য কথা লিখুন প্রমান সহ। যেহেতু আপনার হাতে বেশি সময় থাকেনা নিজেকে উপস্থাপন করার, তাই আপনার সিভি এমন ভাবে উপস্থাপন করুন যাতে নিয়োগকর্তার মনোযোগ আকর্ষণ করা যায়। সিভিতে নিজের সম্পরকে কখনো মিথ্যে তারিখ উল্লেখ করবেন না কারণ আপনার নিয়োগকর্তা দেখতে চান আপনি কবে থেকে নিজের দক্ষতা অর্জন করতে শিখেছেন।

৫. বানান ও ব্যাকরণ ভুলঃ অবশেষে আপনার সিভি সেন্ড করার আগে দেখে নিন বানান ও ব্যকরণ ঠিক আছে কিনা। যদিও এটা খুবই তুচ্ছ ব্যাপার কিন্তু নিয়োগকর্তাগন প্রার্থী নির্বাচন এর ক্ষেত্রে তাদের ভাষার দক্ষতা সম্পরকে নিশ্চিত হন। সুতরাং আপনার সিভি পুনরায় রিভিশন করুন, আপনি অনলাইন এর মাদ্ধমেও বানান বা ব্যাকরণ চেক করিয়ে নিতে পারেন অথবা এই বিষয়ে দক্ষ যে কাউকে দিয়ে চেক করিয়ে নিন।

লাইভ ক্রিকেট স্কোর