শাড়ি পরে স্লিম দেখানোর ৮টি উপায়!

সারাবাংলা ডেস্ক :
Published:  2016-11-23 11:47:49

শাড়ি পরে স্লিম দেখানোর ৮টি উপায়!

উপমহাদেশের নারীদের জাতীয় পোশাক হলো শাড়ি। কমবেশি প্রায় সকলেই শাড়ি পরতে ভালোবাসেন। অফিস পার্টি হোক বা ট্র্যাডিশনাল অনুষ্ঠান। যে কোনও জায়গাতেই শাড়ির জুড়ি মেলা ভার। এই কথা মাথায় রেখেই বাজারে পাওয়া যায় বিভিন্ন ধরনের শাড়ি।

বেনারসী, সিল্ক, তাঁত কিংবা জর্জেট। এইসব শাড়ি এখন বড় আউট ডেটেড। তাই যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এই শাড়িগুলোর মধ্যে দেওয়া হয়েছে আধুনিকতার ছোঁয়া। সিল্কের শাড়ির উপর জুটের কাজ করে বানানো হয়েছে জুট সিল্ক। এমনকী, ট্র্যাডিশনাল শাড়ি বেনারসীর উপরেও প্রত্যেক বছরই কিছু না কিছু আধুনিকতার ছোঁয়া দেওয়া হচ্ছে।

জর্জেট, পাটলি-পাল্লু, তাঁত বেনারসী আরও কত কী। তবে অনেকেরই আবার শাড়ির প্রতি একটা ফ্যাসিনেশন আছে। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সঠিক শাড়ি নির্বাচন করতে পারেন না বলে তাঁদের দেখতে খারাপ লাগে। কাউকে বেশি মোটা আবার কাউকে খুব স্লিম লাগে।

অনেকেই মনে করেন মোটারা শাড়ি পরলে তাদের আরও মোটা লাগে। কিন্তু এই কথা সম্পূর্ণ ভুল। কারণ, মোটাদের উপযুক্ত হরেকরকমের শাড়ি পাওয়া যায় বাজারে। তবে এখন আর কোনও চিন্তা নেই। এবার দেখে নেওয়া যাক ঠিক কী ধরনের শাড়ি, কীভাবে পরলে আপনি হয়ে উঠবেন অপরূপা।

প্রথমত শাড়িতে পিন করা খুব জরুরি। সঠিকভাবে যদি পিন নাও করতে পারেন, তাহলে শুধুমাত্র শাড়ির পাড় কাঁধের ওপরে তুলে দিয়ে পিনআপ করে নিতে পারেন। এর ফলে আপনার পেটও দেখতে পাওয়া যাবে না।
         
আপনার হাত মোটা হলে অবশ্যই ফুল স্লিভ ব্লাউজ পরুন। তার সঙ্গে পিঠ যদি অনেকটা কাটাও থাকে তাহলেও কোনও অসুবিধা নেই। কিন্তু হাত মোটা হলে কখনওই শর্ট স্লিভ ব্লাউজ় পরা উচিত নয়।

যদি আপনার শরীরের নীচের অংশ মোটা হয় তাহলে ভারী কোনও ফ্যাব্রিক যেমন তাঁত বা সিল্কের শাড়ি পরা উচিত নয়। সেক্ষেত্রে শিফন অথবা জর্জেটের শাড়ি পরতে পারেন। এতে আপনার শরীরের প্রতিটি ভাঁজ বোঝা যাবে। যার ফলে আপনাকে রোগা দেখতে লাগবে।

এমনকী শাড়ি ভারী না হলেও, শাড়ির বর্ডারে যদি ভারী কাজ করা থাকে, তাহলেও মোটা লাগে দেখতে। তাই ভারী কাজ করা শাড়ি না পরে হালকা পাড়ের শাড়ি পরাই ভালো। পেটে চেনও পরতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনার পেটের চেনের দিকেই সকলের নজর থাকবে। আপনি মোটা কী স্লিম তা কারোর নজরে আসবে না।

শুধু সুন্দর দেখতে শাড়ি পরলেই হবে। তার সঙ্গে মানানসই পেটিকোট পরতে হবে। ফিশ কাটিং পেটিকোটও পরতে পারেন। এর ফলে আপনার শাড়ি পেটিকোটের সঙ্গে লেগে থাকবে। যার জন্য আপনাকে রোগা দেখতে লাগবে। মোটাদের হালকা রঙের শাড়ি পরলে আরও মোটা লাগে দেখতে।

তাই হালকা শাড়ির বদলে কালো, লাল অথবা যে কোনও ডিপ কালারের শাড়ি পরতে পারেন। স্কিন কালারের ম্যাজিক নিকারর্স খুবই উপকারী। এটি শাড়ির ভিতরে পরে নিলে, যত ভারী শাড়ি পরুন না কেন আপনাকে রোগা দেখতে লাগবে। তাহলে আর চিন্তা কীসের? স্লিম হন কি মোটা, যেকোনও ধরনের শাড়ি পরে হয়ে উঠুন অনন্যা!

লাইভ ক্রিকেট স্কোর